বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম…..

আসসালামু আলাইকুম. সবাই কেমন আছেন আশা করি ভাল আছেন আজ আপনাদের সামনে যে টপিক নিয়ে আলোচনা করব তা হল নাক ডাকা নাক ডাকা একটি কমন  বিষয়, অনেকেই হয়তো ভাবছেন এটা কোন রোগ না এটা কোনো রোগ নয় ভয় পাবেন না এটা হতে পারে একটা রোগের লক্ষণ এর চাইতে বেশি কোন কিছু না কার জন্য ঘুমাতে চান না ঘুমালে নাকি পাশের মানুষের ঘুমের সমস্যা হয় এজন্য ঘুমান না অনেকেই আবার  বিজ্ঞাপন  দেখে আপনার চিকিৎসা করার চেষ্টা করেছেন কিন্তু কোনো ফল পাচ্ছেন না আজ কিছু আলোচনা করব যদি চেষ্টা করেন তাহলে হয়তো উপকার পাবেন

চলুন কিছু পরামর্শমূলক কথা  জেনে নেই

ওজন কমানো

অবাক হওয়ার কিছু নেই আপনি বেশি হওয়ার জন্য আপনার গলার চারপাশে চর্বি জমে যায় এজন্য আপনার নাক এজন্য আপনাকে আপনার শরীরের ওজন কমাতে হবে ব্যায়াম করতে হবে জিমে যেতে হবে  শরীর সুস্থ রাখার জন্য  খেলাধুলা  করতে  হবে  এতে  করে অনেক  উপকার হবে

 

ঘুমের ওষুধ খাবেন না অ্যালকোহল কে না বলুন, ধূমপান অ্যালকোহল মাদক জর্দা এগুলা অতিরিক্ত মাত্রায় খাওয়া হলে আপনার নাক ডাকা সমস্যাটা তৈরি হতে পারে সুতরাং ঘুমের ওষুধ খাওয়া যাবে না মাদককে না বলুন এলকোহল মুক্ত থাকুন ধূমপান করবেন না অতিরিক্ত জ্বরদা খাবেন না.  এতে করে আপনি  বেঁচে যেতে পারেন নাক ডাকার মত একটা অস্বস্তিকর আশা করি আপনারা মেনে চলার চেষ্টা করবেন

 

চিত হয়ে ঘুমাবেন ঘুমালে শ্বাসনালী বন্ধ হয়ে নাক ডাকা তৈরি হতে পারে আপনি যেরকম বিভ্রান্তিতে পড়বে আপনার আশেপাশের মানুষ আপনাকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করতে আপনি ডান কাত হয়ে শোবেন কারণ আমাদের মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেছেন  তোমার ডান  দিকে ফিরে নাক ডাকা থেকে মুক্তি পাবেন ইনশাআল্লাহ.  আপনি  যখন ঘুমাবেন চেষ্টা করবেন একটু উচ্চ যেন হয়.. এটা করে আপনার নাক ডাকা কমে যেতে পারে আশা করি পদ্ধতিটাও আপনি ব্যবহার করবেন আপনার ভালো হবে

মসলাজাতীয় খাবার কম খাবেন মসলাজাতীয় খাবার কম খাবেন  তত ভালো থাকবে ভালো থাকবে আপনি নাক ডাকা থেকে বেঁচে যাবেন সুতরাং আপনি চেষ্টা করবেন মসলাজাতীয় খাবার একটু কম যেন খেতে পারেন

পানি  পানির অপর নাম আপনি বেশি পরিমাণ পানি পান করবেন এতে করে আপনার নাক ডাকার সমস্যা দূর হয়ে যাবে

ব্যায়াম আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়,, নিয়মিত সকাল বিকাল ব্যায়াম করবেন এতে করে আপনার শ্বাসনালী প্রসার থাকবে শরীর সুস্থ থাকবে না  ডাকা থেকে মুক্তি প্রয়োজনে বিকালে একটু খেলাধুলার অভ্যাস করুন এতে করে আপনি অনেক গ্রুপ থেকে মুক্তি  পেয়ে  যাবেন

 

তো প্রিয় বন্ধুরা আজ এই পরে যে টপিক নিয়ে আলোচনা করলাম আপনারা মেনে চলবেন এতে আপনাদের নিজের ভালো পিকটা  আপনারা আপনার বন্ধু বান্ধবের সাথে শেয়ার করুন সবাই ভাল থাকেন সুস্থ থাকুন আল্লাহ হাফেজ

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *